ঢাকাবুধবার, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কতৃক ছাত্রী হয়রানির অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার | সিটিজি পোস্ট
ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২২ ২:৩৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন বিভাগের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনে বিচার চেয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। ছাত্রীর অভিযোগ, তিনি নিজ বিভাগের এক শিক্ষকের যৌন হয়রানি ও মানসিক অত্যাচারের শিকার। তবে অভিযুক্ত শিক্ষক অভিযোগটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত বলে দাবি করেছেন।

 

এর আগে বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে তিনি ওই শিক্ষকের বিচার দাবি করেন।

 

ছাত্রীর অভিযোগ, ২০১৯ সালের ৮ নভেম্বর তাকে ওই শিক্ষক ফোন করে ব্যক্তিগত কার্যালয়ে দেখা করতে বলেন। সেখানে গিয়ে কাজের প্রসঙ্গ তুললে তিনি যৌন হয়রানি করেন। পরে চিৎকার করে পুলিশ ডাকার কথা বললে ওই ছাত্রীকে ছাড়তে বাধ্য হন। সেদিন বিভাগের চেয়ারম্যানকে জানানোর পর উপযুক্ত সাক্ষ্যপ্রমাণ ছাড়া বিচার করা সম্ভব নয় বলে জানানো হয়।

 

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী গত বছরের ২৬ ডিসেম্বর উপাচার্য বরাবর ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেন। সেখানে তিনি বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ধরেন।

 

অভিযোগকারী শিক্ষার্থী ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানান ও অভিযোগ প্রমাণিত হলে অভিযুক্ত শিক্ষকের বহিষ্কার দাবি জানান।

 

অভিযোগের বিষয়ে ওই শিক্ষক বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এখন পর্যন্ত অফিসিয়ালি আমাকে এ বিষয়ে কিছু জানায়নি। হয়তো প্রশাসনের কাছে এটি আমলযোগ্য মনে হয়নি, তাই কিছু জানায়নি। অভিযোগটি মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। সত্যতা যাচাইয়ের জন্য আমিও চাই এর তদন্ত হোক। বিষয়টি নিয়ে আমরা বিভাগের শিক্ষকরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলব। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি অনাস্থা দেখিয়ে ঐ শিক্ষার্থী আজ জনসম্মুখে প্ল্যাকার্ড নিয়ে যা করেছি তা আসলে ঠিক হয়নি বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

 

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন হয়রানির প্রতিরোধ কমিটির কাছে পাঠানো হয়েছে, তারা ব্যবস্থা নেবে।

 

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন হয়রানির প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. লাইসা আহমদ লিসা বলেন, এটি নিয়ে আমাদের সামনের সপ্তাহে মিটিং আছে, তখন আমরা সিদ্ধান্ত নেব। এর আগে কিছু বলা যাচ্ছে না।